না-ধার্মিক মানব সম্মেলন

অবশেষে মিলিত হলেন না-ধার্মিক মানুষেরা। গত ৮ ডিসেম্বর  গোবরডাঙার দীপান্বিতা অনুষ্ঠানগৃহ গৌরীলঙ্কেশ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হলো প্রথম পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য না-ধার্মিক মানব সম্মেলন। অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করেন কল্পনা পাল। স্বাগত ভাষণ দেন দীপক কুমার দাঁ। শোক প্রস্তাব পাঠ করেন ডাক্তার কমল সরকার। সম্মেলনে উদ্বোধনী ভাষণ দেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়। সম্মেলনের লক্ষ্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন সুকুমার মিত্র।

মুলত এই সম্মেলনের লক্ষ্য যুক্তিবাদী বিজ্ঞান মনস্ক মানবিক জীবন ভাবনার লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়া। এই সম্মেলনে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এমনকি বাংলাদেশ থেকেও বিভিন্ন বিজ্ঞান ও পরিবেশ সংগঠনের প্রতিনিধিরা এতে অংশগ্রহণ করেন। ছিলেন অধ্যাপক, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা। প্রত্যেক বক্তার যুক্তিনির্ভর বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সভাটি প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে।

 সম্মেলনের খসড়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে “প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম, ঈশ্বর বা সর্বশক্তিমান উপরওয়ালার ভাবনা, ভাববাদী চিন্তা ও অধ্যাত্মবাদে বিশ্বাসী নন এমন বৈজ্ঞানিক বস্তুবাদে বিশ্বাসী বিজ্ঞানমনস্ক, কু-সংস্কার মুক্ত, যুক্তিবাদী মানবিক গুণসম্পন্ন মানুষদের মঞ্চ বা নেটওয়ার্ক তৈরির লক্ষ্যে না ধার্মিক মানব সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে”। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১৬২ জন প্রতিনিধি যোগ দেন। আসাম ও বাংলাদেশ থেকেও প্রতিনিধিবর্গ যোগ দেন।

2 thoughts on “না-ধার্মিক মানব সম্মেলন

Leave a Reply to বিপুল সাহা Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 3 =