একটি বুনো পৃথিবীতে

 সোমা মজুমদার, হাইলাকান্দি, আসাম   ##

      একটা সবুজ পাহাড় আবিষ্কার করবো।

একটা নিঃশব্দ বাড়ি কিনবো। 

একটা একলা বাগান,  একটি সরোবর। 

চারিদিকে বিরাজ করবে নিস্তব্ধতা। 

সবুজের শান্তি। 

ঘাস ফড়িং এর সাথে নৃত্যে গানে মাতোয়ারা হবো। 

সোঁদা মাটির গন্ধে মাতাল হবো। 

ঘুম এলে ঘুমিয়ে পড়বো 

বুনো ফুলের পাপড়ির ভাঁজে।। 

পাহাড়ের বুক চিরে আসা ঝরনার 

কল কল জলরাশি শব্দে ঘুম ভাঙবে।। 

শিশিরের  শুভ্র পাতলা চাদরে ঘুমন্ত সকাল দেখবো।

গোধূলির ঠোঁটে রাঙা সূর্য এেঁকে দেবে ভালবাসার আলপনা।। 

আবার নিশুতি রাতে নগ্ন পায়ে 

কথা বলবো তারাদের সাথে।। 

প্রজাপতির ডানায় স্বপ্ন আঁকবো। 

পাখিদের সাথে বিতর্কে জড়াবো। 

কখনো হিসাব মেলাবো না 

দুয়ে দুয়ে কতো হলো। 

এখানে চাঁদের আলো ম্লান করবে রাতের অন্ধকার।। 

মেঘ হয়ে সারা আকাশ চষে বেড়াবো। 

আবার বৃষ্টি হয়ে ভেজাবো সবুজ ধানের খেত।। 

কখনো বা মৌন হয়ে বসে থাকবো শান্ত নদীর তিরে।। 

আমি বাউল হবো। 

গেরুয়া বসেন, একতারা হাতে 

গলা ছেড়ে ধরবো লালনের গান।। 

পল্লী গায়ের মেঠো পথে কেবলই হেটে যাবো।

থাকবেনা পিছনে ফেরার কোন তাগিদ।

পাহাড়ের জায়গা দখল করছে দালান বাড়ি। 

নদীর ধারের হিমশীতল বাতাসের বদলে গায়ে মাখতে হচ্ছে কারখানার কালো ধোঁয়া। 

ইট, পাথর,  শব্দদূষন আর ধুলাবালুতে ঘেরা নাগরিক জীবনের শৃঙ্খলমুক্ত একদিন হবই হবো।। 

মান অপমান,  পাওয়া না পাওয়া আর 

মানব জীবনের অনর্থক প্রতিযোগিতা ছেড়ে, 

নিয়মের প্রাচীর ডিঙ্গিয়ে 

একদিন  পাড়ি জমাবো কোন এক বুনো পৃথিবীতে।। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *