এখানে আকাশ কালো

সুমান কুণ্ডু, কলকাতা ##

আকাশটা গুম মেরে হুম হয়ে আছে

কটাক্ষ কাকে? বোধহয় আমাদের!

চোখের জল টলটল করছে, পড়ছে না —

ভাবছে কি চলছে নীচে? অরাজকতা না রামরাজত্ব!

ঘুষখোর মন্ত্রী তুলছে স্বাধীন দেশের জাতীয় পতাকা,

ভন্ড চামচের দল হাততালি দিচ্ছে সজোরে!

কান্না ঝরছে না আমাদের দুর্দশার করুণায়,

শেষ হয়ে যাওয়ার আগে বোধহয় ধ্বংসের ইঙ্গিত!

চেয়ে আছে অভাগা কৃষক জলের আশায়,

জল কোথায়?– সেতো শুকিয়ে গেছে শোকে।

কৃষক পাবে না আকাশের কান্না চাষের জন্য!

মন্ত্রী পাবে জল ভরা রাজপথ,

ঢেউ তুলে মন্ত্রণালয়ের পথে।

ধনী পাবে বৃষ্টিমুখর দিন, ঘরে বসে খুনসুটি

আর, মুরগির ঠ্যাঙের সাথে রাম বা শ্যাম।

ভিখারিনী পাবে জলে ধোয়া-ভেজা রুটি

গিলতে সহজ হবে তাঁর ছোট্ট ছেলেটির।

স্টেশনের টিনের ছাউনি ফুটো হয়েছে,

জল ঝরছে অঝোরে ছোট্ট ঘেরাটোপে!

তারই একপাশে জ্বলছে উনুন, খাদ্যের আশায়।

সেখানে দাঁড়িয়েই টান পড়েছে সিগারেটে,

অপেক্ষারত উদাসীন প্রেমিকের।

উনুন আর সিগারেটের ধোঁয়া

একসাথে মিলেমিশে হারিয়ে যাচ্ছে

গুম মেরে থাকা ঐ আকাশটার দিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *