এবার আসছে হাইড্রোজেন ট্রেন

ডিজেল ইঞ্জিন বাতিল করার লক্ষ্যে হাইড্রোজেন ট্রেন এবং ফিলিং স্টেশন বানানোর কাজ শুরু করল জার্মানি। ২০২৪ সালের মধ্যে সিমেন্স মোবিলিটি এবং ডয়সে বান এই প্রকল্পে তৈরি হাইড্রোজেন চালিত ট্রেনের পরীক্ষা শুরু করবে।

বৈদ্যুতিক রেলগাড়ি মিরেও প্লাসের ওপর ভিত্তি করে প্রোটোটাইপ ট্রেনটি বানাবে সিমেন্স। একটি ব্যাটারি এবং জ্বালানি কোষগুলো গাড়িতেই হাইড্রোজেন এবং অক্সিজেনকে বিদ্যুতে রূপান্তর করবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। সিমেন্স মোবিলিটি প্রধান মাইকেল পিটার জানিয়েছেন, একটি মডিউলার ব্যবস্থায় ব্যাটারি, জ্বালানি কোষ বা ওপরের দিকের বৈদ্যুতিক তারের যে কোনো একটি থেকে শক্তি পাবে ট্রেনটি। এটি নির্ভর করছে ট্রেনটি কোথায় চলছে তার ওপর। ৩৩ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ রেলওয়ে নেটওয়ার্কের ৪০ শতাংশ বৈদ্যুতিক ট্রেনে রূপান্তর করেনি জার্মানির রেলওয়ে পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ডয়সে বান।

 এই নেটওয়ার্কে চলছে ১৩০০ ডিজেল ইঞ্জিনচালিত ট্রেন। পিটারের মতে, দীর্ঘ মেয়াদে ডিজেলচালিত ট্রেনকে বদলাতে পারবে তাদের হাইড্রোজেন ট্রেন। প্রতিটি হাইড্রোজেন ট্রেনের দাম হবে ৫০ লাখ থেকে এক কোটি ইউরো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four − three =