এ তিতাস কোনও নদীর নাম নয়

শুভদীপ পাপলু,  চুঁচুড়া , হুগলী

 

সেই-ই তিতাসের স্মরণে, তোমার ব্যস্ত রাজত্ব,পুড়ে খাঁটি হয়–

সেই-ই তিতাস;নির্ভয়ে ছাই হয়ে চলেছে কবে থেকেই, ভাগ্যদোষ ঢেকে…

নাহ্, একটাও ঝাঁপসা বিছানা রেডি নেই; হেরে যাই-

আর অসুস্থতায় অসুস্থতায়, তুমি ভূমিকন্যা হয়ে চলেছ।

 

এর পরেও ঠিকানাবিহীন, নিচু বরিশাল

জ্যোৎস্নার অশুভ হাঁচি, কিংবা পৃথিবীর সন্তান প্রসবের জন্য ও,

আমার শুয়ে পড়তে ভয় করে না।

ঘন সন্ধ্যে হল,পারলে নষ্ট হতে চল,

অথবা তোমার সাম্রাজ্যবাদ চলকে, ভেসে যাক কুরুক্ষেত্র!

 

প্রাকৃতিক প্ররোচনা, ভাগ্যবিধাতা; সাথে মৃত্যুদূত-অস্পষ্ট।

আয়না আগুনেই তিতাস, ওপর থেকে সরে যাচ্ছে দহন…

আর, আমি তো পাথরকুঁচি; জানিনা, কোত্থেকে উঠে এসেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *