কেমন হবে মডিউলার কিচেন ?

রান্নাঘরের ইন্টেরিয়র ডিজাইনকেই বলা হয় মডিউলার কিচেন। বিভিন্ন স্টাইল ও ডিজাইনের মডিউলার কিচেন আছে বাজারে। নিজের চাহিদা অনুযায়ী পছন্দমতো তৈরি করে নিতে পারবেন মডিউলার কিচেন।  মডিউলার কিচেন হলো কাঠ, মিডিয়াম-ডেনসিটি ফাইবারবোর্ড, হাইপ্রেশার লেমিনেট, ধাতুর মতো বিভিন্ন উপাদান দিয়ে তৈরি ক্যাবিনেট বা মডিউলে সাজানো আধুনিক নকশায় প্রস্তুতকৃত মানসম্মত, টেকসই ও কার্যকরী আসবাব। এই ধরনের কিচেন নজরকাড়া এবং আধুনিক ডিজাইনে তৈরি। বর্তমান জীবনযাত্রার সঙ্গে পুরোপুরি মানানসই। এর আকর্ষণীয় ও হালফ্যাশনের নকশা ব্যবহারকারীদের সন্তুষ্টি এনে দেয়। এ রকম সাজানো-গোছানো রান্নাঘরই সকলেরই প্রিয়। মডিউলার কিচেনের সহজ নকশা আপনার রান্নাঘরে একটা সাধারণ অথচ মার্জিত রূপ এনে দেয়।

এই ফার্নিচারগুলো সহজে স্থাপন কিংবা স্থানান্তর করা যায় এবং এর রক্ষণাবেক্ষণও বেশ সহজ। প্রতিনিয়ত বেড়ে চলা আবাসিক ও বাণিজ্যিক নির্মাণকাজের ফলে বিশ্বব্যাপী একটা বড় সংখ্যক রেস্টুরেন্ট ও ডাইনিং আউটলেট চালু হচ্ছে। এগুলোর ব্যবসার আকার বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে তাদের রান্নাঘরের চাহিদা মেটাচ্ছে এই মডিউলার কিচেন। কাঠ, মিডিয়াম-ডেনসিটি ফাইবারবোর্ড, পি-২, প্লাইউড, হাইপ্রেশার লেমিনেট, ল্যাকর লেমিনেট, ভিনিয়ার বোর্ড, সিরামিক, ক্রিস্টাল গ্লাস, স্টেইন কিংবা ধাতব উপকরণের মতো উন্নতমানের উপাদান দিয়ে তৈরি মডিউলার কিচেন।

কেমন হবে মডিউলার কিচেন?

  • মডিউলার কিচেনের সেট আগে একটু ভাবনা-চিন্তা করে নিন। আগে থেকেই ঠিক করে নিন, আপনার কিচেন ‘এল’ শেপের হবে না সমান্তরাল। কিচেনে জায়গা কম থাকলে তা সোজাসুজি বা সমান্তরাল করুন। তবে কিচেনের জন্য আপনার ফ্ল্যাটে অগাধ জায়গা থাকলে তা ‘এল’ শেপের করতে পারেন।
  • মডিউলার কিচেন সেট করার আগেই ঘরের ইলেকট্রিক সুইচগুলো কোথায় বসাবেন, তা ডিজাইন করে নিন। পাশাপাশি, মডিউলার ইউনিটগুলো বসানোর আগে কিচেন থেকে যাতে সহজেই জল বের হওয়ার আউটলেট থাকে, তা ঠিক করে নিন।
  • মডিউলার কিচেন সেট করার আগে থেকেই ঘরের স্টোরেজ সম্পর্কে ধারণা করে নিন। দেয়ালে ক্যাবিনেট হবে না কিচেন কাউন্টারের তলায় ড্রয়ার রাখবেন, তা আগে থেকেই ঠিক করে নিন। বাড়িতে বয়স্ক মানুষজন থাকলে সহজেই টানা যায় এমন ড্রয়ার রাখুন।
  • কিচেনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশই হলো কাউন্টার টপ। এখানেই আপনার গ্যাস ওভেনসহ সব গেজেট থাকে। মডিউলার কিচেন তৈরির আগে ঠিক করে নিন তা গ্রানাইট না মার্বেলের হবে। বাড়িতে বেশি তেল-মসলাদার খাবার তৈরি হলে গ্রানাইটের মতো সহজেই পরিস্কার করা যায় এমন কোনো কাউন্টার টপ বসাতে পারেন।
  • কিচেন পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য উন্নত মানের ইলেকট্রিক চিমনি লাগান। তাছাড়া কিচেনের দেয়ালে ঘন কালো বা ধূসরের বদলে কোনো উজ্জ্বল রং করুন। এতে কিচেনে আলোর প্রতিফলন ভালো হবে।
  • ক্যাবিনেটের বদলে কিচেনের প্রতিটি কোণে ড্রয়ার তৈরি করুন। এতে অল্প জায়গাতেও অনেক জিনিসপত্র রাখতে পারবেন। তবে জায়গা বেশি থাকলে ক্যাবিনেটও লাগাতে পারেন।
  • কিচেনে চলাফেরার জন্য যাতে পর্যাপ্ত জায়গা থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখুন। রান্না করা বাসনপত্র পরিস্কার করা ও স্টোরেজের জায়গা আলাদা করুন। আপনার কিচেনের মাঝেই কাউন্টার টপের ব্যবস্থা থাকলে তার থেকে তিন ফুট দূরে এগুলো রাখা উচিত। এতে সহজেই কিচেনে চলাফেরা করতে পারবেন।
  • যতই দামি মডিউলার কিচেন সেট করুন না কেন, তাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে যাতে আলো-বাতাস খেলতে পারে সেদিকে নজর দিন। পারলে কিচেনের জানালা বড় করুন। তবে জায়গার অভাব থাকলে চিমনি বা ফ্যান লাগাতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − thirteen =