ঘুমের দেশে ঘুম চুরি 

রণধীর রায় 

 

মস্ত সে এক ঘুমের দেশ

পাতালপুরের ঠিক উপরে

রাজা প্রজায় আছেন বেশ -চমক লাগে!

চমক লাগে; কি আনন্দ

খাজনা বাজনা বিশাল ব্যাপার

ঘুমের রাজা নিত্যানন্দ – খটকা  লাগে !

খটকা লাগে কাল  দুপুরে

রাজা ওঠেন বেজায় রেগে

স্নানে যাবেন দুধ পুকুরে -বেজায় গরম!

বেজায় গরম, পথ ঘাট আর

ফাটক ভেঙে ঘুম কারাগার

আঁতকে ওঠে হিয়া রাজার- ঘুম চুরি!

ঘুম চুরি তাও ঘুমের দেশে?

হৈ হৈ রব এক নিমিষে

মন্ত্রী বলেন অংক কষে- নিদ্রাহরণ!

নিদ্রাহরণ? সে তো বহিরাগত

তেপান্তরের পশ্চিমেতে

ভয়ানক তার অস্ত্র যত- যুদ্ধ তবে!

যুদ্ধ তবে জানে সবাই

নিদ্রা হরণ যেখানেই থাক

পাবেনা সে কোন রেহাই- রাজার আদেশ!

রাজার আদেশ- “ঘুম” চাই তার

ঘুম কারাগার শূন্য বেকার

মন্ত্রী বলেন ডেকে এবার- যুদ্ধ প্রতাপ!

যুদ্ধ প্রতাপ, সে তো শীত নগরে

তিন রাত তার লাগবে সময়

ফিরতে দেশে, ঘুম সমরে- বেজায় জটিল!

বেজায় জটিল, কী করা যায়

চিন্তা সবার উতলিয়ে হায়…

রানী তখন দিলেন উপায়- সন্ধি করো!

সন্ধি করো দূত পাঠিয়ে

সঙ্গে পত্র, মুক্তা-মানিক

আর যা চায় “ঘুম” না নিয়ে-নইলে বিপদ!

নইলে বিপদ ভীষণ রকম

ঘুমের দেশে ঘুম না হলে

নির্বাচনে গদি জখম- হটতে হবে!

হটতে হবে ভাবলে রাজার

বুক ধুকপুক চিন্তার ভাঁজ

মধ্যরাতে আদেশ এবার- পাঠাও দূত!

পাঠাও দূত সন্ধি ভাল

যুদ্ধের চেয়ে অনেক সহজ

নিদ্রা হরণ গললে হল- ঘুম চাই!

 

ঘুম চাই, শুধু ঘুম চাই, শুধু ঘুম চাই…

ঘুমের ভিতর ঘুম চাই আর

ঘুমের পরেও ঘুম চাই

সকাল সন্ধে ঘুম চাই আর

খিদের পেটেও ঘুম চাই

মাথার ওপর ঘুম চাই আর

পায়ের তলায় ঘুম চাই

শুরুর আগে ঘুম চাই আর

শেষের পরে ঘুম চাই

ঘুমের সাথে ঘুম চাই আর

ঘুম ছাড়া ঘুম ঘুম চাই

 

সবাই অবাক একি হল

কাঁপে থরথর মন্ত্রী-সেপাই

রাজার কী তবে মাথা গেল- সর্বনাশ!

সর্বনাশ আরও ঘটতে বাকী?

নিদ্রাহরণ হঠাত হাজির

অস্ত্র হাতে, মারবে নাকি- ভিষণ বিপদ!

ভিষণ বিপদ কোথায় পালাই?

বেহুঁশ রাজা সঙ্গে আমি

জলের ছিটে মায়ের ধোলাই- ঘুমের ইতি!

 

স্বপ্ন ছিল?

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *