তুই

নীলোৎপল

ঝিরঝিরে বৃষ্টি
আলতো, আবছা আলো
তুই দাঁড়িয়েছিলি কালো শাড়ি পরে
তোর চিবুকে ছোট্ট জলবিন্দু
যেন অন্তসারশূন্য ছোট্ট হৃদয়ের একটা চাহিদা
ছোট্ট কালো টিপ,
হালকা সিঁদুর,
আঁচলের পারে কত রঙিন স্বপ্ন –
ইচ্ছে হয় তোকে পেতে,
তোর কাছে যেতে
পাছে তুই যদি জানতে পারিস আমি এসেছি –
তুই যদি ভয় পাস –
তোর বিবর্ণহীন চেহারার মাধুর্যতা আকর্ষণ করে আমায় – তোর ওই টানা টানা চোখে তির্যকী টান –
মুগ্ধ হই আমি……..
হঠাৎ জোরে বৃষ্টি —-
তোর শিক্ত বিবর্ণ মুখে যেন একটু আকুতি
নির্ভরতাহীন সমাজে একটু নির্ভরতার মর্যাদা –


…….
অস্বাভাবিক চঞ্চলতা আসে আমার মনে
কখন তোর কাছে যাব,
তোর স্নিগ্ধ শীতল রূপের ঠিকানা পাবো,
জানি এ জন্মে তুই আমার নস
তবে জেনে রাখিস একদিন আমি আসবো
সাক্ষী থাকবে আকাশ বাতাস চন্দ্র সূর্য তারারা,
প্রলয় শুরু হবে, উত্তাল হবে পৃথিবী
জলোচ্ছাসে তোর চিবুকের জল যাবে ধুয়ে,
সাক্ষী থাকবে পরিজায়ী পাখিরা
তোর আবছা আলোর মুখের অবয়বে
আসবে কোন নতুন প্রেরণা
হবে নতুন আকাশ, নতুন বাতাস, নতুন গন্ধ
যাব একদিন তোর কাছে
কথা দিলাম
নতুন পৃথিবী নিয়ে/

One thought on “তুই

  • July 6, 2024 at 3:43 pm
    Permalink

    বাহ দারুন, বেশ লাগলো লেখাটা

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − eight =