দিদিমার শব যাত্রাঃ উড়ল আবীর, বাজল ডিজে, উদ্দাম নাচ নাতিদের

মারা গিয়েছেন দিদিমা, আত্মীয়দের দাবী বয়স হয়েছিল প্রায় ১২০ বছর। সেই দিদিমার দেহ নিয়ে নেচে-গেয়ে শেষকৃত্যের জন্য শ্মশানে গেলেন নাতি-নাতনিরা। ঘটনায় হতবাক এ রাজ্যের দিঘা থানার দক্ষিণ শিমুলিয়ার।

মৃত দিদিমার নাম মাহেশ্বরী চন্দ। অল্প বয়সেই তার বিয়ে হয়েছিল। এরপর থেকে সংসারকে সন্তান স্নেহে আগলে রেখেছিলেন তিনি। ছোট ছোট পরিবারের যুগেও একান্নবর্তী পরিবারকে আগলে রেখেছিলেন তিনি। ১২০ বছর বয়সি ওই নারীর কমপক্ষে ৫৬ জন নাতি। দিব্যি কাটছিল জীবন। তেমন রোগ ভোগও করেননি। শেষমেশ বয়সজনিত কারনেই প্রাণ হারালেন তিনি। তার মৃত্যু নাতি-নাতনি ও পরিবারের অন্যদের দুঃখ দিয়েছে ঠিকই। তবে কঠিন বাস্তবকে মেনে নিতে বিশেষ সমস্যা হয়নি তাদের।

শেষকৃত্যের অভিনব আয়োজন করেন নাতি-নাতনিরা। হরেক রকম ফুলে সাজিয়ে দেওয়া হয় খাট। আর পাঁচজন শ্মশানযাত্রীর মতো শুধু খই ছড়ানো হয়নি। রাস্তায় ছড়ানো হল ফুলও। ওড়ানো হলো আবির। ফাটল আতশবাজি। শবযাত্রীরা ব্যান্ড বাজিয়ে উদ্দাম নাচানাচি করলেন। এভাবেই এগোতে থাকে বৃদ্ধার শববাহী মিছিল। শ্মশানের সামনে গিয়ে শেষ হয় নাচানাচি। 

এমন অভিনব শবযাত্রা অবাক করে দিয়েছে পুরো দিঘাকে। পর্যটক কিংবা স্থানীয় মানুষ, সকলেই ব্যতিক্রমী এই কাণ্ড দেখে থ। কেউ কেউ অবশ্য এ ধরনের আচরণের তীব্র বিরোধিতা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen + fifteen =