দুর্ঘটনাগ্রস্থের প্রাণ বাঁচালো স্মার্ট ওয়াচ

আজকের বিশ্বে প্রায় প্রতিটি মানুষই প্রযুক্তি নির্ভর। প্রযুক্তি ছাড়া মানুষের দৈনন্দিন জীবন এখন কল্পনা করা যায় না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে হিতে বিপরীত হলেও এর ভাল দিকগুলিও অস্বীকার করা যায় না। এবার দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত বাইকচালকের জন্য অ্যাম্বুল্যান্স ডেকে প্রাণ বাঁচাল স্মার্ট ওয়াচ!

গত ২৫ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় আহত এক ব্যক্তিকে দেখে যখন পথচারীরা দেখেও না দেখার ভান করে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছিলেন,  তখন ত্রাতার ভূমিকায় শেষমেশ এক ইলেকট্রনিক গ্যাজেট। আর তার কারণেই শেষমেশ প্রাণ বাঁচল ওই ব্যক্তির।

জানা গেছে, বছর চব্বিশের মুহাম্মদ ফিতরির বাইকের সঙ্গে একটি ভ্যানের মুখোমুখি ধাক্কা লাগে। এতে রাস্তায় ছিটকে পড়ে তৎক্ষণাৎ জ্ঞান হারান তিনি। তাকে সহযোগিতা না করে উল্টে ভ্যানচালক সেখান থেকে পালিয়ে যান। এমনকি ফিতরিকে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখেও কেউ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেননি বলে অভিযোগ। এসময় বিপদের বন্দু হয়ে উঠল ফিতরিরই হাতে থাকা অ্যাপল ঘড়িটি।

ফিতরি জানিয়েছেন, তার হাতে থাকা ঘড়িটি বার্তা পাঠায় আপৎকালীন পরিষেবায়। শুধু তাই নয়, তার প্রেমিকা-সহ বেশ কয়েকজন পরিচিতের কাছে জরুরি বার্তা পাঠিয়েছিল সেটি। সেই বার্তা পেয়েই অ্যাম্বুল্যান্স ঘটনাস্থলে এসে ফিতরিকে উদ্ধার করে।

জানা গেছে, অ্যাপল-এর সিরিজ ৪ মডেলটি ছিল ফিতরির হাতে। এই ঘড়ির একটি বিশেষত্ব হল ‘ফল ডিটেকশন ফিচার’। এই বৈশিষ্টই সক্রিয় হয়ে গিয়েছিল ফিতরির হাতে থাকা অ্যাপল ঘড়িটির। যা তার প্রাণ বাঁচাতে সাহায্য করেছে। এর আগেও অ্যারিজোনাতে এক ব্যক্তি সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ে গেলে এভাবেই তার প্রাণ বাঁচিয়েছিল তার স্মার্টওয়াচটি।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + 1 =