নতুন জন্ম

সোমা দাস, সরশুনা, বেহালা

 

ঈশ্বর বললেন একদিন, আমি আমি যাব পরের দিন-
যেথায় যাই যাব…বলল, মাকে নাকি পাবো।
যাবার জন্য আমি তৈরী, যাব আমি মায়ের বাড়ি।

গেলাম আমি মায়ের কাছে, বুঝলাম ওখানে সবাই আছে
বাবা, দিদা ও দাদু আর কাকা-কাকি
সবাইকে বলে দিয়েছে আর কেউ নেই বাকি।

দিন তো যাচ্ছে, রাতগুলোও যায়,
মায়ের যা ইচ্ছে মা তাই খায়।
দিন যেতে যেতে মাসে পরিণত হল,
এক মাস চলে গিয়ে দু মাস হল।
মনে হল মাকে নিয়ে যাবে ডাক্তারের কাছে,
বাবার না কি জানা দরকার কে এবং কেমন আছে।

জানল যখন আমি আছি মায়ের ভিতরে
হঠাৎ করে চোখ মুছলো মা, নিজের কাপড়ে।
বাবা বললো মাকে কিছু কথা-
কেউ বুঝতে চাইছে না মায়ের মনের ব্যথা;
ফোন এল, কথা হলো অনেক সময় ধরে
বাবা বলল, মা আমি ওকে বোঝাবো কেমন করে?

অনেকক্ষণ পরে মা রাজি হয়ে গেল
ডাক্তারকে বললো বাবা মা ও সাথে এলো।
ভিতরে আমার লাগছিল ভয়,
এমন ব্যথা কেমন করে সয়!
বলছিলাম, মা কি হচ্ছে আমার সাথে?
ভয় লাগছে মা থেকো আমার পাশে-

এমন সময় আমি যেন কোথায় চলে গেলাম
ফিরে এসে মাকে আমি দেখতে নাই পেলাম।
মায়ের কোলে জন্ম নেব এমন ভেবেছিলাম-
জন্ম নেওয়ার জন্য আমি নিজেকে হারালাম…

মেয়ে হয়ে জন্ম নেওয়া- এটা কি আমার পাপ?
তাই যদি হবে তবে দিলাম অভিশাপ,
মেয়ে হয়ে জন্ম নিয়ে হবো আমি ভালো।
এই পৃথিবীতে একদিন মেয়েরাই করবে আলো॥

 

2 thoughts on “নতুন জন্ম

  • March 25, 2019 at 6:15 pm
    Permalink

    অপূর্ব কবিতা। মেয়েটির আরো লেখা পড়ার আশায় থাকলাম।

    Reply
  • March 25, 2019 at 6:18 pm
    Permalink

    প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই অবেক্ষণ-কে এবং পলাশ স্যারকে আমার ছাত্রীর লেখা এই কবিতাটি কে এই ম্যাগাজিনে জায়গা দেওয়ার জন্য ।
    সোমা আরো ভালো কবিতা লিখতে থাকুক এবং ওর ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হোক।।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *