নীল আকাশের নিচে

সুমান কুণ্ডু, কলকাতা ##    

নদীটা আপন খেয়ালে বইছিল

এ বাঁক ও বাঁক

এ চর ও চর পেরিয়ে

দূর নীল দিগন্তে

নীলাকাশ মিশেছিল তার এক প্রান্তে

অন্য প্রান্তে সবুজ বনানী।

কিছু স্বার্থলোভী মানুষ

একদিন নদীতে বাঁধ নির্মাণ করল।

অবরুদ্ধ হল তার গতিপথ

ভাঙ্গতে লাগল পাড়

এ পাড়ের সাধারণ জীবজগৎ

বিশ্বাস করল ‘ও পারেতে সব সুখ’।

নদী গতিমুখ পরিবর্তন করল

গজিয়ে উঠল বালুচর তার মাঝে

তার গভীর দীর্ঘশ্বাসে বাতাস

হয়ে উঠল বিষ, বিষাদঘন।

কুটিল মানুষগুলো তাও তাকে 

নিস্তার দিল না,

তার দুই পাড় জুড়ে গড়তে লাগল নগরী

নদী আজ স্তব্ধ, ভাষাহীন

এক অব্যক্ত অবহেলিত যন্ত্রণার প্রতিচ্ছবি

তার বুকে ইদানীং জঞ্জাল ভাসে,

দুর্গন্ধে চারিপাশ মলিন

সেই নদী এখন এক রিক্ত ভালবাসা।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *