পুরনো আয়না নতুন হোক

কারণে হোক অথবা অকারণে, আয়নার সামনে আমাদের দাঁড়াতেই হয়। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় যে বস্তুটি তা হল আয়না। আর এই আয়নায় সবচেয়ে বেশি ময়লা হয়ে থাকে। আপনি যত দামী লিকুইড দিয়ে পরিষ্কার করুন না কেন আয়নাকে নতুনের মত করা সম্ভব হয় না। কিছু দাগ আয়নায় রয়েই যায়। আয়নার দাগ দূর করার ঘরোয়া কিছু উপায় আছে। ঘরোয়া এই উপায়গুলো পুরানো আয়নাকে করে তুলবে একদম নতুন।

১। ভিনিগার
ভিনিগার এবং জল মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি একটি স্প্রে বোতলে ভরে রাখুন। আয়নার উপর মিশ্রণটি স্প্রে করুন। মাইক্রোভাইবার ক্লথ অথবা খবরের কাগজ অথবা সুতির কাপড় দিয়ে আয়নটি মুছে ফেলুন। এছাড়া ভিনেগার জলের মিশ্রণ কাপড়ে ভিজিয়ে আয়নাটি পরিষ্কার করতে পারেন।

২। বেকিং সোডা
বেকিং সোডা ব্যবহার করে খব সহজে আয়নার দাগ দূর করা সম্ভব। এক চা চামচ বেকিং সোডা একটি কাপড়ে নিয়ে পুরো আয়নায় ভালো করে ঘষে নিন। এবার জলে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে আয়নাটা মুছে ফেলুন। দেখবেন, আয়নার দাগ এক নিমেষেই চলে গেছে।

৩। ডিস্টিল্ড ওয়াটার
আয়নাকে নতুনের মত ঝকঝকে করতে ডিস্টিল্ড ওয়াটারের জুড়ি নেই। সাধারণ জলের চেয়ে ডিস্টিল্ড ওয়াটার আয়না পরিষ্কার করতে বেশ কার্যকর। একটি কাপড়ে ডিস্টিল্ড ওয়াটার নিয়ে আয়না ভালো করে মুছে নিন। এটি প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারেন।

৪। বেকিং সোডা
ঘরে থাকা বেকিং সোডা ব্যবহার করে খুব সহজে আয়নার দাগ দূর করা সম্ভব। এক চা চামচ বেকিং সোডা একটি কাপড়ে নিয়ে পুরো আয়নায় ভালো করে ঘষে নিন। এবার জলে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে আয়নাটা মুছে ফেলুন। দেখবেন, আয়নার দাগ এক নিমেষেই চলে গেছে।

৫। শেভিং ক্রিম
বাথরুমের আয়নায় জল পড়ে পড়ে দাগ পড়ে যায়। যা ওঠানো অনেক বেশি কঠিন হয়ে পড়ে। এই আয়নায় শেভিং ফোম বা ক্রিম মেখে কিছুক্ষণ পর কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। দেখবেন জলের সব দাগ উঠে গেছে। তবে মনে রাখবেন, বেশিক্ষণ আয়নার ওপর শেভিং ক্রিম মেখে রাখবেন না। এতে উল্টো দাগ পড়ে যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *