পুরনো ছাদের কার্নিশ

শুভদীপ সেন, চুঁচুড়া, হুগলী

##

অভিমানীনি…

 

স্মৃতি’র উপকূলে,আমি স্বপ্নে পেয়েছি

সেই বাগানবাড়ি

যে আজও আকাশের দিকে চেয়ে আছে,

মনে হয় তার প্রভাব-ক্ষমতা যথেষ্ট।

 

পাশ দিয়ে সাপের মতো বয়ে গেছে

নাম না জানা নদী,কুমারী শীত পাহাড়ি।

গরিব আদরের পাওনা

রূপোলী ভোরে কবে হয়েছে মকুব?

 

আচমকা কয়েকটি ছায়ামূর্তি বালিশের ধারঘেঁষে উড়ে এসে মিলিয়ে যেতে চায় বর্ষাধারায় –

আমার সকল অনুতাপ

পরকীয়া কুয়াশায় ঢেকে যায়,

কিন্তু পরবর্তী তুলি’তে

কোন ডাকাত সাবালক হবে

তা নির্দিষ্ট ভাবে অজানা।

 

অভিমানীনি…

 

সে সাহিত্যপ্রিয়,

তারওপর কিছুদিন ধরে ভীতু’ও  বটে

গত বছরের শাঁখা-পলা-নোয়া,

আজ যেভাবে ফকির, ধর্মীয় –

এখনও এ-চিলেকোঠা’র কোনে

বর্ণহীন কিছু পাখি ওড়ে।

 

আমি সেই নদী বরাবর নেমে আসতে দেখেছি

পাখা মেলা উজ্জ্বল পরীদের…

জন্মান্তরের কাঁচা রাস্তা’র বাঁকে

শেষ হয় যে শারদসংখ্যা–

সেই দিনলিপি’র,

অনামিকা ছুঁয়েছি বিষাক্ত হাতে,

 

অভিমানীনি…

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *