বাংলাতেও প্রকাশ হোক সুপ্রিম কোর্টের রায়

বিভিন্ন মামলার রায় ইংরেজি ছাড়াও আরও ৭টি ভাষায় ওয়েবসাইটে প্রকাশ করার উদ্যোগ নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে এই ৭টি ভাষায় পাওয়া যাবে সুপ্রিম কোর্টের বিভিন্ন মামলার রায়। এই কাজের জন্য প্রয়োজনীয় সফটওয়্যারের অনুমতি দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ।

এত দিন এই রায় কেবল ইংরেজি ভাষায় ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হতো। এখন ইংরেজি ছাড়াও হিন্দি, তেলেগু, অহমিয়া, মারাঠি, কন্নড়, ওড়িয়া ও তামিল ভাষায় রায় প্রকাশিত হবে।

সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রকাশের ভাষার তালিকায় বাংলার নাম নেই। এ কারণে ক্ষুব্ধ এবং হতাশ পশ্চিমবঙ্গের মানুষজন। সুপ্রিম কোর্টের রায় বাংলা ভাষাতেও প্রকাশের দাবি উঠেছে। এই দাবির পক্ষে ইতিমধ্যে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে আবেদন করা হয়েছে।

খবরটি আসার পর বাংলা ভাষার নাম না দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ডান বাম সকলেই। তবে বিজেপি এখনও গোটা বিষয়টি নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি। ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুল মান্নান ও বাম পরিষদীয় দলনেতা সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী।

আব্দুল মান্নান ও সুজন চক্রবর্তী দাবি জানিয়েছেন,  সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রকাশের ভাষার তালিকায় বাংলাকেও যেন অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এই জন্য তাঁরা সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে আবেদন পেশ করেছেন। এ ছাড়া আবেদন করা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে।

পরিস্থিতির গুরুত্ব বিচার করে আইনমন্ত্রী মলয় ঘটককে বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নানের সঙ্গে বৈঠকে বসার নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের শাসক ও বিরোধীদের তরফে এই বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বাংলা ভাষার স্থান ভারতে এখন দ্বিতীয়। প্রথম হিন্দি। বিশ্বে এই বাংলা ভাষার স্থান সপ্তম। বাংলা ভাষায় শুধু পশ্চিমবঙ্গের মানুষ কথা বলে না। ত্রিপুরা, ঝাড়খন্ড, ওড়িশা, বিহার ও অসমের বহু মানুষও বাংলায় কথা বলে। তাই সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রকাশের তালিকায় বাংলা না থাকায় তাঁরা আঘাত পেয়েছেন। এতে বাংলাভাষীরা ব্যথিত। যে ভাষার জন্য আজ গোটা বিশ্বে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়। সেই বাংলা ভাষাকে সুপ্রিম কোর্টের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হোক চান সব বাঙালিই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *