বিনিয়োগের খুঁটিনাটি

বিজয় মুখোপাধ্যায় ##

“Risk comes from not knowing what you are doing” – Warren Buffett

                                             বিনিয়োগের কথা শুনলেই আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে শচীন তেন্ডুলকরের “Mutual fund সহি হ্যায়” বিজ্ঞাপনের ছবি অথবা মনে হয় বিনিয়োগ বোধহয় কেবলমাত্র Tata, Birla, Ambani গোছের একটা ব্যাপার। কিন্তু বাস্তবটা আদতে তা নয়। সত্যি কথা বলতে কি, অধিকাংশ মানুষই জীবনে আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু বেশীরভাগের ক্ষেত্রে এই স্বপ্ন, স্বপ্নই থেকে যায় সঠিক পরিকল্পনার অভাবে। আমাদের চারপাশে এমন উদাহরণ প্রায়শই পাওয়া যায় শুধুমাত্র আর্থিক সমস্যার কারণে অনেকের অনেক পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়নি। হতে পারে কেউ অনেক অর্থ উপার্জন করেন, কারোর বা দিন-আনা-দিন-খাওয়া অবস্থা। কিন্তু একথা অনস্বীকার্য যে অবস্থা যেমনই হোক না কেন, জীবনে আর্থিক শৃঙ্খলা থাকা জরুরী। আগেরকার দিনে নিতান্ত হতদরিদ্র পরিবারেও লক্ষ্মীর ঘটে পয়সা জমানোর রেওয়াজ ছিল, যাতে অনাগত ভবিষ্যতের অপ্রত্যাশিত সমস্যার মোকাবিলা করা সম্ভব হয়। এখন ঘটে পয়সা জমানোর রেওয়াজ প্রায় উঠেই গেছে। এখন তো খুচরো পয়সার দেখা মেলা ভার; আর ঘটের পরিবর্তে এসেছে হরেক কিসিমের সঞ্চয়ের বন্দোবস্ত।

আর একটি বিষয়ের উল্লেখ না করেই পারছি না। আমাদের চারপাশে চেনা পরিচিত মুষ্টিমেয় সরকারী  চাকুরীজীবী বয়স্ক যে কজনকে দেখেছি, অধিকাংশের ক্ষেত্রে একটি বিষয় common; তাঁরা retirement এর পর Provident Fund, Gratuity বা অন্যান্য ক্ষেত্র থেকে অবসরকালীন যে অর্থ পেতেন, তার প্রায় সর্বস্ব অবসর জীবনে একটি বাড়ি বানানো বা দীর্ঘ দিনের সযত্নে রক্ষিত কোন স্বপ্ন পূরনের জন্য ব্যয় করেছেন। চাকরী করা কালীন সময়ে মেয়ের বিয়ে বা সন্তানের উচ্চ শিক্ষার জন্য হয় Provident Fund এর Loan বা একটু একটু করে জমানো সামান্য সঞ্চয়ের উপর ভরসা করতে হয়েছে। এর সব কারণ এটা নয় যে, শুধুমাত্র তাদের বেতনের অপ্রতুলতা বা সাংসারিক দায়-দায়িত্ব; এর পাশাপাশি কোথাও একটা সুচিন্তিত পরিকল্পনার অভাব স্পষ্ট। বর্তমানের  উচ্চ বেতনধারী বহু মানুষের মধ্যে এখনও যে পরিকল্পনার অভাব লক্ষ্য করা যায়।

আর সাধারণ দিন-আনা-দিন-খাওয়া মানুষের কথা ! তাদের তো নুন আনতে পান্তা ফুরানোর মত অবস্থা। তাঁরা দুটো বেশি পয়সার আশায় কখনও বা Chit Fund এর কবলে পড়ে আবার কখনও বা নিকটজনের চিকিৎসার খরচ বা সখের একটা TV বা Mobile কেনার জন্য চড়া সুদে ঋণ নেন।

সুতরাং ক্ষেত্র যাই হোক না কেন সকল স্তরের মানুষের জন্য নিজ নিজ ক্ষমতা অনুযায়ী জীবনে আর্থিক শৃঙ্খলা জরুরী। প্রাত্যহিক জীবনে যেমন বিভিন্ন সামাজিক নিয়ম আমরা মেনে চলি, তেমনি সুখী পারিবারিক জীবনের জন্য সুচিন্তিত আর্থিক পরিকল্পনা করা প্রয়োজন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে আমাদের অজ্ঞতার জন্য বা জেনেও  সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ না করার জন্য জীবনে বহু ক্ষেত্রে আমাদের পস্তাতে হয়।

অবেক্ষণের এই বিভাগে ধারাবাহিক ভাবে বিনিয়োগের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হবে। বিনিয়োগ (Investment) এর পরিবর্তে হয়ত সঞ্চয় (Savings) শব্দটি ব্যবহার করলে অনেকের কাছে বিষয়টি সহজ বোধ্য হত। কিন্তু ‘বিনিয়োগ’ শুধু সঞ্চয়ে সীমাবদ্ধ নয়; বিনিয়োগ মানে শুধু Bank, Post-Office, Share market বা Mutual Fund এর Investment নয়। এর বাইরেও ‘বিমা’ থেকে শুরু করে ‘বিষয়-আশয়’, ‘আয়কর’ থেকে শুরু করে ‘উইল’ সবই এ বিষয়ের অর্ন্তগত। এই সকল বিষয়ে ধারাবাহিক ভাবে বিষয় ভিত্তিক বিস্তারিত আলোচনা এ বিভাগে থাকবে। অনেক বিষয়ই হয়ত আমাদের জানা, কিন্তু তার বাইরেও বিপুল না জানা জগৎ থেকে কেউ যদি এতটুকু উপকার পেয়ে থাকেন তবেই আমাদের এ বিভাগ সার্থক হবে।

2 thoughts on “বিনিয়োগের খুঁটিনাটি

  • November 4, 2020 at 4:47 am
    Permalink

    Khub informative post

    Reply
  • November 5, 2020 at 11:55 am
    Permalink

    অপেক্ষায় থাকলাম। অবেক্ষণ কে ধন্যবাদ এমন বিভাগ তৈরির জন্য।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *