বিশ্বের বিচিত্র বিয়ে

চন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়

পৃথিবীতে কতই না বিচিত্র ঘটনা ঘটে। তার মধ্যে কিছু ঘটনা হাস্যকর আবার কিছু অবাক করার মতো। সাধারণত সবাই জানে, মানুষ শুধু মানুষকেই বিয়ে করে কিন্তু অনেকেই আছে যারা অন্যান্য জিনিসের সঙ্গে বিয়ে করে গোটা বিশ্বের মানুষকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। তারা হয় তো প্রমাণ করতে চেয়েছেন বিয়ে মানেই শুধু নারী-পুরষের দৈহিক সম্পর্ক নয়। এটা মনেরও ব্যাপার বটে। তেমনি কিছু বিচিত্র বিয়ের খোঁজ রইল আপনাদের জন্য।

 

বালিশের সঙ্গে বিয়ে

কোরিয়ান এক ভদ্রলোক বিশেষ ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে বিয়ে করেছেন তার ব্যবহৃত বড় কোলবালিশকে যাতে একটা মেয়ের ছবি আঁকানো রয়েছে। একটি বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি তার প্রিয় বালিশটাকে বিয়ের পোশাকে সাজিয়ে ধর্মযাজক ডেকে বিয়ে করেন। বালিশটি তিনি জাপান থেকে কিনেছিলেন।

সাপের সঙ্গে বিয়ে

থাইল্যান্ডে প্রেমিকার মৃত্যুর পর এক সাপকে বিয়ে করেছেন এক যুবক। ওই সাপের সঙ্গে তার ঘর-সংসার চলছে পুরোদস্তুর। একসঙ্গে টিভি দেখেন, ভিডিও গেম খেলেন, কেরাম বোর্ড খেলেন, দূরে কোথাও বেড়াতে যান। এমনকি সাপকে নিয়ে বের হন শপিংয়ে।ওই গোখরা সাপের দৈর্ঘ্য ১০ ফুট। বৌদ্ধ ধর্মের বিশ্বাস অনুসারে, মৃত মানুষ প্রাণীর বেশে ফিরে আসে। ওই যুবকটির ধারণা তার প্রেমিকাও ফিরে এসেছে সাপের বেশে। বুনো সাপটিকে প্রথম পোষ মানান তিনি এরপর প্রেমিকা মনে করে বিয়েও করেছেন। <br />একই রকম ঘটনা ভারতেও। ৩০ বছরের এক নারী বিয়ে করেছেন এক গোখরা সাপকে! প্রায় ২০০০ হাজার মানুষ এই বিয়েতে যোগ দেয় এবং পুরোহিতের সামনে পুরো আধ ঘণ্টা বসে থেকে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী এই বিয়ে সম্পন্ন হয়।

কুকুরের সঙ্গে বিয়ে

প্রায় বিশ বছর আগে প্রথম বিয়ে করেন অ্যামান্ডা রজার্স। তারপর কয়েক মাসের মধ্যেই স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় তার। এরপর বিশটি বছর কাটিয়েছেন প্রিয় পোষা কুকুরের সঙ্গে। একজন উপযুক্ত জীবনসঙ্গীর সব গুণ পোষা প্রাণীর মাঝে খুঁজে পেয়ে শেষমেশ বিয়েই করে বসেছেন কুকুরটিকে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ লন্ডনে। আর দশটা বিয়ের আয়োজনের মতো তিনিও বিয়েতে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। তৈরি করেন আলাদা করে বিয়ের পোশাক। বিয়ের অনুষ্ঠানে অ্যামান্ডা সেবাকে চুমুও খান। ২০০ অতিথি উপস্থিত ছিলেন সেই অনুষ্ঠানে। উপস্থিত সবাই নবদম্পতির উপর কাগজের ফুল ছিটিয়ে দেন। বেচারা কুকুর সেটা বুঝে উঠতে না পারলেও বেশ আনন্দেই ছিল সেটা বোঝা গেলে বিয়েতে তোলা ছবি থেকে।

আইফেল টাওয়ারের সঙ্গে বিয়ে

৩৭ বছর বয়সী এরিকা লা টুর আইফেল অনেক আগে থেকেই বিভিন্ন অদ্ভুত জিনিসের সঙ্গে সম্পর্ক করেছেন! তার প্রথম ভালোবাসা ছিলো একটা তীরধনুক যা তাকে একজন দক্ষ তীরন্দাজ বানিয়েছে। পরবর্তীতে এরিকা আইফেল টাওয়ারের প্রতি চরম ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে তার কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের নিয়ে অনুষ্ঠান করে আইফেল টাওয়ারকে বিয়ে করেন এবং নামের শেষে আইফেল শব্দটি ব্যবহার করা শুরু করেন!

নিজের সঙ্গে বিয়ে

এটা আরো আজব ঘটনা। বিয়ে ঘটিত ঘটনায় একেবারে নতুন। ৩৯ বছর বয়সের লিউ উই চায়নার বাসিন্দা। তিনি প্রায় ১০০ অতিথির সামনে নিজেই নিজেকে বিয়ে করেন!

দেওয়ালের সঙ্গে বিয়ে

ইজা রিত্তা বার্লিনার নামের সঙ্গে বার্লিনার অংশের উপস্থিতিই প্রমাণ করে যে তিনি বার্লিন ওয়ালের কতটা ভক্ত! ১৯৭৯ সালে কিছু সংখ্যক অতিথির সামনে তিনি বার্লিন ওয়ালকে বিয়ে করেন।

ভিডিও গেমসের সঙ্গে বিয়ে
জাপানে ভিডিও গেমস প্রিয় এটা সবার জানা কথা। তাই বলে ভিডিও গেমসকে বিয়েই করে বসতে হবে? জাপানীজ নেনে অ্যানেগাসাকি নামের এক তরুণ তেমনটিই করলেন। তিনি বিয়ে করেছে একটা ভিডিও গেমকে আর সেটা বিশাল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

 

ল্যাপটপের সঙ্গে বিয়ে

মার্কিন যুবক ক্রিস সেভিয়ার তার নিজের ল্যাপটপ কম্পিউটারটাকেই বিয়ে করবেন বলে ঠিক করেছেন। তবে তার এই বিচিত্র বিয়ের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে আদালত। কারণ মানুষের সঙ্গে যন্ত্রের বিয়ের কোনো আইন যে নেই! সেজন্য ক্রিস এখন প্রিয়তমা ল্যাপটপটিকে জীবনসঙ্গী করতে আদালতের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়েছেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *