স্বতন্ত্রের “ঘরে -বাইরে নাট্যোৎসব”

গত ৭ই ও ৮ই জানুয়ারী কলকাতার মিনার্ভা থিয়েটার হলে কলকাতা স্বতন্ত্র নাট্য সংস্থা আয়োজন  করেছিলো দুদিন ব্যাপী “ঘরে -বাইরে  নাট্যোৎসব” । উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নাট্যজন বাদল দাস, শ্যামল  চন্দ্র ও অভীক ভট্টাচার্য্য। প্রথমেই আলোর জাদুকর বাদল দাসকে উত্তরীয়, পুষ্পস্তবক, শুভেচ্ছা স্মারক সহযোগে বরন করেন সংস্থার বরিষ্ঠ সদস্য  বিমান পালচৌধুরী ও সহযোগিতা করেন বুবু কুণ্ডু । এরপর বিশিষ্ট নাট্যকার শ্যামল চন্দ্রকে একইভাবে বরন করেন স্বপন ঘোষ ও সহযোগিতা করেন শ্রীতমা বসু । সবশেষে ভাবনা থিয়েটার পত্রিকার সম্পাদক অভীক ভট্টাচার্যকে বরন করেন সংস্থার সভাপতি শ্যামল চক্রবর্ত্তী ও সহযোগিতা করেন দেবপ্রিয়া ঘোষ । এরপর এই তিনজন বিশিষ্ট নাট্যজন প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে নাট্যোৎসবের শুভ সূচনা করেন এবং নিজেদের বক্তব্য পেশ করেন ।

নাট্যোৎসবের প্রথম দিনে দুটি নাটক মঞ্চস্থ হয়। প্রথম প্রযোজনা ছিলো আয়োজক নাট্যসংস্থার মঞ্চসফল ও বহুল প্রশংসিত নাটক গেটম্যান। এই নাটকের নাট্যকার  শ্যামল চন্দ্র ও নির্দেশনায় শ্যামল চক্রবর্ত্তী । এই নাটকের মূল চরিত্রে অভিনয় করেন সায়ন চক্রবর্ত্তী, শ্যামল চক্রবর্ত্তী  ও উর্নাবতী সেন । এছাড়াও মঞ্চে নাটকে গায়েন  চরিত্রে অভিনেতা কাঞ্চন চ্যাটার্জীর খালি গলায় গান দর্শকের চোখে  জল এনে দেয় এবং পিওন চরিত্রে অভিজ্ঞ অভিনেতা বিমান পালচৌধুরী নিজ দায়িত্ব পালন করেন ।

প্রথম দিনের দ্বিতীয় নাটক ছিলো অনীক নাট্য সংস্থার নবতম প্রযোজনা ঈশ্বর । নাট্যকার – সুদীপ্ত ভৌমিক ও নির্দেশক  – অরূপ রায়।

দ্বিতীয় দিনের প্রথম নাটক ছিলো, হালিশহর ইউনিটি মালঞ্চ নাট্যগোষ্ঠীর নাটক কাঠপুতলী । নাট্যকার – চিরন্তন চক্রবর্ত্তী ও নির্দেশক  – দেবাশীষ সরকার ।   

দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় নাটক ছিলো, মৃচ্ছকটিক নাট্যগোষ্ঠীর নাটক ভগীরথ । নাট্যকার ও নির্দেশক  – শুভাশীষ বন্দ্যোপাধ্যায়  ।   

দ্বিতীয় দিনের তৃতীয় নাটক ছিলো, টালিগঞ্জ স্বপ্নমৈত্রী  নাট্যগোষ্ঠীর নাটক লুকোচুরি । নাট্যকার – শ্রীজীব গোস্বামী ও নির্দেশক  – ইন্দ্রনীল মুখার্জী ।

দুদিনই সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন দেবজ্যোতি বৈরাগী ও মনালী দেশমুখ্য। এছাড়াও কলকাতা স্বতন্ত্র নাট্যগোষ্ঠীর সকল সদস্য  – শ্যামল চক্রবর্ত্তী, বিমান পাল চৌধুরী, স্বপন ঘোষ, কাঞ্চন চ্যাটার্জী, মলয় সান্যাল, সায়ন চক্রবর্ত্তী, দেবজ্যোতি বৈরাগী, দেবীপ্রসাদ দত্ত, সোমনাথ মন্ডল, শীর্ষেন্দ্রনাথ চক্রবর্ত্তী, শুভম সাহা, অনিমেষ ভট্টাচার্য্য, সৌমিক মান্না, বুবু কুন্ডু, মনালি দেশমুখ্য, শর্মিষ্ঠা চ্যাটার্জী, পাপিয়া ভট্টাচার্য্য, শ্রীতমা বসু এবং দেবপ্রিয়া ঘোষ – সকলেই যথাযথ দায়িত্ব পালন করে এই উৎসবকে সাফল্যমন্ডিত করে তোলেন । প্রেক্ষাগৃহের আসন সংখ্যার ৫০% দর্শক নিয়ে অনুষ্ঠান  করা যাবে রাজ্য সরকারের এই  কোভিড নির্দেশিকাকে কঠোরভাবে পালন করে সচেতনতা ও সাবধানতাকে অবলম্বন করে প্রেক্ষাগৃহের আসনসংখ্যার মাত্র ২৫%  দর্শক নিয়ে তারা সফলভাবে গোটা অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 3 =