ইউটোপিয়া

মূল কবিতা নোবেলজয়ী পোলিশ কবি Wisława Szymborska

অনুবাদকঃ বাসব মণ্ডল, কলকাতা  ##

স্বচ্ছ এই প্রবাল দ্বীপ জুড়ে

শক্ত মাটি সহজেই অনুভূত হয়-

স্বচ্ছন্দ জাতায়াতের অবাধ সুযোগ।

সন্দেহের ঝোপ,নুয়ে পড়ে

যথার্থ কারণের ভারে।

 সঠিক অনুমানের গাছ

বড় হয় সযত্নে

তার শাখা প্রশাখা সুবন্যস্ত হয়

কালের অতিপ্রাচীন নির্ঘন্ট ভেদ করে।

সমঝোতার গাছটাও

সরল সোজা ভাবে উঠে দাঁড়ায়

‘দেখো ! আমিও পারি ‘ র … ট্যাগলাইন ছুঁয়ে।

জলের নিরন্তর গভীরতায় …জঙ্গলের গহনতায়

দিগন্ত উন্মুক্ত হয় ,

নিশ্চিন্ততার এই অনাম্নী উপত্যকায়।

দোলাচলহীন এই রাজ্যে 

যদিও অতর্কিতে কিছু ঘটে কোনোদিন , 

বাতাসের  দৃঢ় মর্মর শব্দ

তাকে স্থিরতার প্রশ্রয় দেয়।

ডানদিকের গুহাটির মধ্যেই লুকিয়ে থাকে

জীবনের আসল নির্যাস

আর বাঁ গুহাতে প্রত্যয়ের হ্রদ।

সত্যের মায়াময় আনন্দরূপ 

জেগে ওঠে মাটি ফুঁড়ে ,আচম্বিতে-

উপত্যকা জুড়ে আত্মবিশ্বাসের ফলক,

শৃঙগুলি থেকে দেখা যায় জীবনের নিহিত অর্থ ।

এতো কিছু  সেত্ত্বেও , এই দ্বীপ জনমানবহীন

সৈকতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা পদচিহ্ন

হারিয়ে যায় স্রোতের গভীরে ।

বিদায় নিতে হয় ,এই বলে যে … 

‘আর ফিরবো না

এ অব্যক্ত,অগম,অচেনা ,অমোঘ জীবনে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *