দুধ দিচ্ছে না মোষ, থানায় যেতেই সমাধান

বড়ই অবাধ্য পোষা মোষটি। কিছুতেই দুধ দুইতে দিতে রাজি নয় সে। তাই গলায় দড়ি পরিয়ে তাকে টেনে থানায় নিয়ে গেলেন মালিক। লিখিত অভিযোগ জমা দিলেন। আর কাজ হল তাতেই।  থানা থেকে ফিরে আর মালিকের সঙ্গে ঝামেলায় যায়নি মোষ। বাধ্য মেয়ে হয়ে মালিককে দুধ দুইতে দেয় সে। 

মধ্যপ্রদেশের ভিন্ড জেলার নয়াগাঁওয়ের বাসিন্দা বাবুলাল জাতভ এবং তার মোষের এমনই কাণ্ড নেট দুনিয়ায় হইচই ফেলে দিয়েছে। মোষের গলায় দড়ি পরিয়ে থানায় হাজির হন তিনি। থানা-চত্বর থেকে সেই দৃশ্যই ভাইরাল নেটমাধ্যমে। বাবুলালের দাবি, দুধ দুইতে গেলেই গন্ডগোল পাকাচ্ছে মোষটি। গ্রামের লোকও চেষ্টা করেও কিছু করতে পারেনি। সকলের আশঙ্কা, কেউ নজর দিয়েছে অথবা কালো জাদু করেছে। তাই পুলিশকেই বিহিত করতে হবে। কাঁহাতক আর লোকসান সইবেন তিনি।

পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পুলিশও বাবুলালের অভিযোগটি জমা নিতে বাধ্য হয়। অভিযোগ জমা দেওয়ার ঘণ্টা চারেক পর ফের থানায় হাজির হন বাবুলাল। চটজলদি কিছু একটা করার জন্য পুলিশের কাছে কার্যত অনুনয় বিনয় করতে শুরু করেন । তাঁকে আশ্বস্ত করে বাড়ি ফেরত পাঠান নয়াগাঁও থানার আধিকারিক অরবিন্দ শাহ। পরে কিছু লোকজনকেও পাঠান তার বাড়িতে। তার পর রাত পোহাতেই ফের পাড়াসুদ্ধ থানায় হাজির বাবুলাল। তবে এ বার আর অনুযোগ নয়, কপালে হাত ঠেকিয়ে পুলিশ কর্মীদের ধন্যবাদ জানান তিনি। গ্রামের লোকজনও সাধুবাদ দেন। বাধ্য মেয়ে হয়ে মোষ দুধ দুইতে দিয়েছেন বলে জানান।

তাহলে কি পুলিশের ভয়েই শেষমেষ মাথা নোয়াল মোষটি? পুলিশ আধিকারিক অরবিন্দ হেসে জানান, থানার কনস্টেবলদের দিয়ে এক জন পশু চিকিৎসককে বাবুলালের বাড়ি পাঠিয়েছিলেন তিনি। কিছু সমস্যা ছিল। তিনি ইঞ্জেকশন দিয়ে যাওয়াতেই কাজ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =