বাঙালির নতুন দেবতা “টেনশন দেব”

   

বাঙালির নাকি তেত্রিশ কোটি দেবতা? এবার বোধহয় সেই তালিকা একটু বদলাবে। কারণ এবার এই দেবতালিকায় নতুন সংযোজন টেনশন দেবতা। দৈনন্দিন জীবনের হাজার রকমের টেনশন দূর করতে এবার রীতিমতো ঘটা করে টেনশন দেবতার পুজোয় মাতলেন মেখলিগঞ্জ ব্লকের নিজতরফ গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দারা। উচ্চশিক্ষা লাভ করেও কপালে চাকরি জুটছে না। নেই তেমন কোনও কর্মসংস্থানের সুযোগও। বেকারত্বের জ্বালায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন তাদের অনেকেই। সব মিলিয়ে টেনশন তাদের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। এই অবস্থা থেকে মুক্তির আশায় এবার টেনশন দেবতার পুজো করলেন একদল যুবক। পুরোহিত ডেকে রাস্তার ধারে তারা টেনশন দেবতার আরাধনা করে নিজেদের টেনশন দূর করে চাকরি সহ কর্মসংস্থানের মানত করলেন দেবতার কাছে। পুরোহিতও রীতিমত ভক্তি ভরে টানা মন্ত্র পড়ে গেলেন। প্রসাদের মধ্যে ছিল কলা, সন্দেশ, নারকেল, মিষ্টি সবই।

পুজোর প্রস্তাব নিয়ে বিভিন্ন পুরোহিতের সঙ্গে যোগাযোগ করেন উদ্যোগী যুবকরা। কিন্তু প্রথমে কেউই এতে আমল দেননি। কারণ এই দেবতার রূপ কেমন, মন্ত্রই বা কি হবে? এইসবই তাদের অজানা। এরপর ওই যুবকরা নিজেরাই উদ্যোগী হন। নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে একটি পাথরের উপর রং করে চোখ মুখ এঁকে সেটিকে দেবতার রূপ দেবার চেষ্টা করেন। সেই হাতে তৈরি দেবতাকে রাস্তার পাশে একটি গাছের নীচে বসিয়ে বেদি বানিয়ে টেনশন পুজো শুরু করেন। এরপর থেকে অবশ্য শুধু বেকার যুবকরাই নন, গ্রামের বড়, ছোট সকলেই টেনশনে পড়লে এই দেবতার কাছে প্রার্থনা করে যাচ্ছেন। ব্যস বেড়ে গেল বাঙালির আরও এক দেবতা। কি, শিবরাম চক্রবর্তীর দেবতার জন্ম গল্পটি মনে পড়ে যাচ্ছে নাকি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + one =