বীতরাগ

পারমিতা ভট্টাচার্য

 

তুমি যখন অনেক দূরে ,আনন্দে মাতোয়ারা

আমি তখন অন্ধকারে,মনে দুঃখের ফতোয়ারা।

সুখের সাগরে ভেসে যাও তুমি,আমি দুঃখে নিমজ্জমান।

তোমার আমার জীবনধারা এভাবেই দিব্যি প্রবাহমান।

 

আজ সাহসী সূর্যালোক,

জ্যামিতিক চিত্রে ভরিয়ে দেয় ঘর……

তাই উৎফুল্ল আজ তোমার মননের চিত্রকর,

আর আমি????

পড়ে থাকি ছিন্নবীণা নিয়ে দেউরী তে ঠেস দিয়ে ,

নদী যেন কখন বানভাসি হয় চন্দ্রলোকের ।ওম  নিয়ে।

জানালার পাশে লোকানো চোরানো ছায়ারা ও বুঝি জানে,

দুঃখ ভেজানো মনের আজ মন খারাপের মানে।

ইচ্ছে করে ছুটে যাই ,তোমার আনন্দের তন্দ্রালোকে

তোমায় আজি বেঁধে রাখি চোখের পাকে পাকে।

প্রতিপদে প্রতিক্ষণে স্বপ্নহারা এ মন,

হে প্রাণপ্রিয় তোমারই খোঁজে সর্বক্ষণ।

আমার মন খারাপের জানালা দিয়ে

তোমার পদ ধ্বনি আসে,

আমার হৃদয় জোড়া আসন পাতা

তোমার আগমনী উচ্ছ্বাসে।

নাইবা এলে প্রিয় আর আমার‌ই গৃহদ্বারে

তবু পন করেছি আমি।

জন্ম_জন্মান্তরেও ভুলবোনা তোমায়

তা জানে অন্তর্যামী।।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *