অ্যালার্জি মুক্ত ঘর

বাড়ি-ঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না থাকলে তার ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে আমাদের শরীরে। দেখা দেয় নানা রোগ। বিশেষ করে বাড়িতে ছোটো বাচ্চা থাকলে বাড়ি পরিষ্কার রাখা খুব জরুরি। রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা কম থাকায় বাচ্চারা তাড়াতাড়ি অসুস্থ হয়ে পড়ে। বাড়িকে কীভাবে এলার্জি মুক্ত রাখবেন, রইল কিছু টিপস্ –

১. ঘরের প্রত্যেকটি জায়গা নিয়মিত পরিষ্কার রাখা জরুরি। নয়তো সেখান থেকেই বাসা বাঁধতে পারে রোগ জীবাণু। ঘরের কোণায় কোণায় যাতে নোংরা আর্বজনা না জমতে পারে, সেদিকে খেয়াল রাখা জরুরি।

২. ফ্রিজ পরিষ্কার রাখাও খুব দরকার। খাবারদাবার রাখা থাকে, আর সেখানে যদি নোংরা থাকে তবে খাবারের মধ্যে দিয়ে তা আমাদের শরীরে প্রবেশ করবে। শরীর অসুস্থ হবে। নষ্ট হয়ে যাওয়া জিনিসপত্র সময়ে বের করে দিন ফ্রিজ থেকে। খাবার জিনিস ঢেকে রাখাই ভালো। নয়তো ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধবে।

৩. বাড়িতে পোষ্য প্রাণী থাকলে ঘরদোর পরিষ্কার রাখা আরও জরুরি। নয়তো রোগ জীবাণুর সংক্রমণ ঘটতে পারে। পোষ্য প্রাণীটি আদরের হলেও বেড রুমের বাইরে রাখুন তাকে। খাবারদাবারে যাতে কুকুর বেড়ালের রোম না পড়ে সেদিকেও নজর রাখুন।

৪. এদিক-ওদিক জিনিসপত্র ছড়িয়েছিটিয়ে থাকা মানেই ধুলোবালি জমে বেশি। তাই সব জিনিসপত্র যথাস্থানে গুছিয়ে রাখুন।

৫. বাড়িতে অপ্রয়োজনীয় প্লাগ খুলে ফেলুন। পরীক্ষায় দেখা গেছে, volatile organic compounds (VOCs) আমাদের শরীরে ক্ষতির কারণ হতে পারে। হতে পারে শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যাও।

৬. বেডরুমের বিছানা নোংরা হয় বেশি। আর বাড়িতে বাচ্চা থাকলে, সারাক্ষণ বিছানায় দাপিয়ে বেড়ায়। ঘর এল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *