শহীদ

চয়নিকা (সাঁতরাগাছি, হাওড়া)

আপনি সুনন্দা, নেহা কিংবা গুরপ্রীত কাওকে চেনেন না,
যাদের ভালোবাসার বিনিময়ে আপনার ভালবাসাবাসি,
যাদের শূন্যতা কিনে আপনি ঘুমোন,
তারা তো কেউ হয়না আপনার,
ফুলমাসি, রাঙাপিসি বা ছোটোকাকিমা, কেউ না।
আপনি খবর শোনেন, তর্ক করেন,
অফিসের ইন্টারনেট ব্যবহার করে প্রেম থেকে প্রয়োজন,
সবটা মিটিয়ে বাড়িতে আসেন,
খাবারের থালার শ্রাদ্ধ সেরে,
রাতে পাখার নিচে দেহ রেখে স্বপ্ন দেখেন।
সভা সমিতিতে যান, সোশ্যাল সাইটে বক্তব্য রাখেন,
আপনার দামী মতামতে দেশকে সমৃদ্ধ করেন,
আর কখনো সখনো সহানুভূতির চাপে,
লাইক অথবা শেয়ার করেই সেরে ফেলেন শহীদ সফর,
দেশপ্রেমের হাওয়ায় বুকটা অনেকটা ফুলিয়ে নেন।
রোজ রাতে যে একলা কাঁদে ভালোবাসা ফুরিয়ে যাওয়ার সময় গুনে,
যে মা অপেক্ষা করে ছেলের মৃত্যু সংবাদের,
তাদের খবর রেখেছেন কখনো?
ওই বাবার খবর জানেন যে আগুন জ্বালিয়ে রেখেছে,
মুখাগ্নির আহুতি দিতে?
সকাল বিকাল দুবার ওজন মাপেন,
ক্যালোরির হিসাব কষেন।
এ কে 47 এর ওজন জানেন?
দু-তিন দিনের উপোষে কতো ক্যালোরি কমে,
হিসাব করে দেখেছেন কখনো?
শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ঘরের তাপমাত্রা মাপেন,
কম্বলের নিচে লুকোন আরামের শীত,
সীমান্তের গরম ঠাণ্ডার মাপার থার্মোমিটার আছে আপনার কাছে?
নেই তো, আরে দরকার কি এসবের বলুন!
বলছি, আপনি ভালো আছেন তো? বেশ বেশ ভালো থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *