আয়ু কমায় হটডগ, পিৎজা !

হটডগ, একটি মুখরোচক খাবার। নাম যেমনই হোক, স্বাদের জন্য খাবারটি বিভিন্ন দেশে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। টিফিনে কিংবা বিকালের জলখাবারে হটডগ এখন বেশ পরিচিত নাম। সম্প্রতি এই খাবার নিয়ে প্রকাশ্যে এসেছে একটি ভয়ঙ্কর তথ্য। গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, একটি হটডগ খেলে মানুষের আয়ু কমতে পারে আধ ঘণ্টারও বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখে গেছে, একটি হটডগ খেলে মানুষের আয়ু কমতে পারে কমপক্ষে ৩৬ মিনিট। নেচার ফুড জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণাটি মানুষের সুস্থ জীবন-যাপন করার উদ্দেশ্যে করা হয়। এর আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে খাওয়া হয় এমন পাঁচ হাজারের বেশি খাবারের ওপর চলে গবেষণাটি। তাতে দেখা যায় হটডগ, শর্করা জাতীয় পানীয়, বার্গার এবং স্যান্ডউইচের মতো খাবার খেলে স্বাস্থ্যকর জীবন থেকে অধিকাংশ মিনিট কমে যাচ্ছে। 

রিপোর্ট বলছে, হটডগ স্যান্ডউইচে প্রক্রিয়াজাত মাংস মানুষের আয়ু ৩৬ মিনিটের মতো কমিয়ে দিতে পারে। হটডগে উপস্থিত পলিউনস্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ফাইবারের উপকারিতা থাকলেও এটি আমাদের জীবনকে চূড়ান্ত মূল্যে ৩৬ মিনিট কমিয়ে দেয়। অন্যদিকে ফল, নন-স্ট্যার্চি ও মিশ্র সবজি, রান্না করা শস্য ও এবং রেডি-টু-ইট সিরিয়ালগুলো শরীরের আয়ু বাড়াতে সবচেয়ে লাভজনক হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। আবার ওই গবেষণা নিবন্ধে বলা হয়েছে, পিনাট বাটার ও জ্যাম স্যান্ডউইচ খেলে একজন ব্যক্তির আয়ু ৩০ মিনিটেরও বেশি বাড়িয়ে দিতে পারে। একইভাবে যদি কোনও ব্যক্তি পিৎজাসহ বেকন এবং বার্গারের মতো খাবার খান, তাহলে তার জীবনের আয়ু কমে যায়। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পিৎজা একজন ব্যক্তির জীবনের প্রায় ১০ মিনিট শেষ করে দেয়। মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা কার্বন ফুটপ্রিন্টস এবং পুষ্টির ভিত্তিতে কিছু খাদ্যসামগ্রী গণনা করেছেন। তাতে দেখা গেছে, বাদাম খাওয়া আপনার জীবনের অ্যাকাউন্টে ২ মিনিট বেশি যোগ করতে পারে। কলা একজন ব্যক্তির আয়ু সাড়ে ১৩ মিনিট বৃদ্ধি করে। টমেটো সাড়ে ৩ মিনিটের বেশি জীবন বৃদ্ধি করে। অ্যাভোকাডো জীবন বাড়ায় ২ মিনিট ৪ সেকেন্ড।

কোনও কোনও দেশে রীতিমতো হটডগ খাওয়ার প্রতিযোগিতাও হয়। যিনি সবচেয়ে কম সময়ে বেশি হটডগ খেতে পারেন তাকে দেওয়া হয় লক্ষ লক্ষ টাকা। গবেষণার তথ্যানুযায়ী তাহলে তো বলাই যায়, হটডগ খেয়ে কেউ যেমন পুরস্কার জিততে পারেন তেমনি পারেন নিজের মৃত্যুকে কাছে ডেকে আনতে! এ যেন মৃত্যুকে হাতছানি দিয়ে ডাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − fifteen =